করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে কুয়াকাটায় ভ্রমণেও নিষেধাজ্ঞা

মার্চ ৩১ ২০২১, ১৯:০২

Spread the love

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যে তিন পার্বত্য জেলার মতো পটুয়াখালীর কুয়াকাটায়ও ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত কুয়াকাটায় সকল ধরনের হোটেল-মোটেল বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন।

সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে কুয়াকাটায় পর্যটকসহ জনসাধারনের সচেতন করতে বুধবার মাইকিং করছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধূরী  বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে পর্যটন এলাকায় জন সমাগমে বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

আগামী ১৫ দিনের জন্য এ আদেশ বলবৎ থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, “পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সকল ধরনের হোটেল-মোটেল বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।”

কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার মো. সোহরাব হোসেন  বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ১লা এপ্রিল থেকে আগামী ১৫ দিন কুয়াকাটায় পর্যটন এলাকায় ট্যুরিস্ট ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

তিনি জানান, সকল ধরনের হোটেল-মোটেল বন্ধ থাকবে। তাই প্রতিটি হোটেলে গিয়ে পর্যটকদের গন্তব্যে ফিরে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

“দোকান-পাট সীমিত আকারে খোলা থাকবে। তবে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। বাস মালিকদের উদ্দেশ্যে দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের সচেতন করা হচ্ছে।”

তিনি জানান, কোনোক্রমেই মাস্ক ছাড়া বাসে চলাচল করা যাবে না। এই বিষয়ে পর্যটকসহ সকলের অবগতির জন্য ও সচেতন করতে কুয়াকাটায় মাইকিং করা হচ্ছে।

বুধবার রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান জেলা প্রশাসনও সব পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়ে দিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বুধবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫ হাজার ৩৫৮ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে; মৃত্যু হয়েছে আরও ৫২ জনের।

নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৬ লাখ ১১ হাজার ২৯৫ জনে। আর গত এক দিনে মারা যাওয়া ৫২ জনকে নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মোট ৯ হাজার ৪৬ জনের মৃত্যু হল