হাত-পা বাঁধা অচেতন অবস্থায় গৌরনদীতে ইজিবাইক চালককে উদ্ধার

ফেব্রুয়ারি ২২ ২০২১, ০৫:০৭

Spread the love

 

: জেলার প্রবেশদ্বার গৌরনদী উপজেলার ভুরঘাটা বাসষ্ট্যান্ড থেকে ইজিবাইকসহ নিখোঁজ চালক রাকিব হাওলাদারকে (১৮) অমানুষিক নির্যাতনের পর হাত ও পা বাঁধা অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবার রাত পর্যন্ত তার জ্ঞান ফেরেনি।

উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামের নজরুল হাওলাদার জানান, তার পুত্র রাকিব হাওলাদার প্রতিদিনের ন্যায় শনিবার বিকেলে নিজের ইজিবাইক নিয়ে যাত্রী পরিবহনে নামে। ওইদিন বিকেল তিনটার পর থেকে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়ার পর অনেক খোঁজাখুজি করেও তার (রাকিব) কোন সন্ধ্যান মেলেনি।

তিনি আরও জানান, রবিবার সকালে ইল্লা নামক এলাকার একটি ঘেরের পাশে হাত-পা বাঁধা ও অচেতন অবস্থায় স্থানীয়রা রাকিবকে দেখে তাদের খবর দেয়। রাকিবের শরীরে নির্যাতনের অসংখ্য চিহ্ন রয়েছে। তার ইজিবাইকটিরও কোন সন্ধান মেলেনি। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করে তাকে (রাকিব) মুমূর্ষ অবস্থায় প্রথমে গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালে ও পরে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সূত্রমতে, গত বছরের আগস্ট মাসে গৌরনদীর বাটাজোর বাসষ্ট্যান্ড থেকে নিজের ইজিবাইকসহ নিখোঁজ হয়েছিলেন উজিরপুরের উত্তর মোড়াকাঠী গ্রামের আব্দুছ ছালাম রাঢ়ীর পুত্র মামুন রাঢ়ী। নিখোঁজের আটদিন পর বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের বার্থী হাইস্কুল সংলগ্ন খাল থেকে অর্ধগলিত জবাই করা মামুনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পর পুলিশ দীর্ঘদিন তদন্ত করে চাঞ্চল্যকর মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করেন। অদ্যবর্ধি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মামুন হত্যার কোন ক্লু উদ্ঘাটন করতে পারেনি।