বরিশালে মিমাংসার আশ্বাসে জামিনে বেরিয়ে বলৎকারে অভিযুক্ত আইনজীবীর পল্টির অভিযোগ

জানুয়ারি ১০ ২০২১, ১৩:৪৭

Spread the love

 

নিজ মোয়াক্কেলকে বলৎকার করার অভিযোগে কারাগারে যাওয়া আইনজীবী বাদীর সঙ্গে মিমাংসার আশ্বাস দিয়ে জামিনে বেরিয়ে পল্টি দিয়েছে। ঘটনা বরিশালের। অভিযুক্ত ব্যক্তি হচ্ছেন নগরীর মুসলিম গোরস্থান রোড এলাকার বাসিন্দা ও জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সদস্য শামসুল হক।

২০২০ সালের ১১ অক্টোবর তার বিরুদ্ধে বলৎকারের অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন নগরীর কাউনিয়া এলাকার বাসিন্দা এক যুবক। ওই মামলায় গ্রেফতারের পর ১২ অক্টোবর আদালতের বিচারক জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

ভুক্তভোগী যুবক সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেছেন, অভিযুক্ত শামসুল হক আইনজীবীর মাধ্যমে মিমাংসার আশ্বাস দিয়ে সম্প্রতি জামিন লাভ করেন। জামিনে বেরিয়েই তিনি ভোল পাল্টে ফেলেছেন। শামসুল হক মিথ্যা অভিযোগ তুলছেন আমি নাকি তাকে হুমকি দিচ্ছি। কিন্তু তিনি জামিনে বের হওয়ার পর তার সঙ্গে আমার কোনো ধরনের যোগাযোগই হয়নি।

ঘটনাকালীন সময়ে কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাম বলেছিলেন, মামলাকারী যুবককে অনেকে তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) ব্যক্তি বললেও তিনি তা অস্বীকার করেছেন। তার দাবি গত ৮ মাস ধরে তার সঙ্গে জোর করে অস্বাভাবিক যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে আসছেন আইনজীবী শামসুল হক। এমন একটি ভিডিও ক্লিপও তিনি পুলিশকে দিয়েছে। এ ঘটনায় মামলা রুজুর পর ওই রাতেই আইনজীবীকে গ্রেফতার করা হয়।

বরিশাল সচেতন নাগরিক কমিটির (সনাক) সভাপতি অধ্যাপক শাহ্ সাজেদা এ ঘটনাকে একজন সিনিয়র আইনজীবীর নৈতিক অবক্ষয় দাবি করে এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। পাশাপাশি এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির পাশাপাশি মামলার বিচার না হওয়া পর্যন্ত ওই আইনজীবীর সনদ বাতিলের দাবি জানান।

বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আফজালুল করিম জানান, পুলিশের তদন্তে ওই আইনজীবীর অপরাধ প্রমাণিত হলে বিষয়টি নিন্দনীয় হবে। অপরাধ প্রমাণিত হলে এর দায় ব্যক্তির ওপর বর্তায়। আইনজীবী সমিতি কোনোভাবেই এর দায় নেবে না।

তবে যুবকের সঙ্গে অস্বাভাবিক যৌন সম্পর্ক করার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুলিশের হেফাজতে থাকা আইনজীবী শামসুল হক।