প্রকাশিত সংবাদের ভিন্নমত

জানুয়ারি ১০ ২০২১, ১৮:৪৮

Spread the love

 

গত ০৬ জানুয়ারি ২০২১ দৈনিক বাংলাদেশ বাণীসহ স্থানীয় কয়েকটি
পত্রিকায় প্রকাশিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা শিরােনামের সংবাদ বক্তব্য ভিন্নমত
প্রসঙ্গে। মোঃ জসিম উনি খান, পিতা- মৃত আছমত আলী
খান, ২৫নং ওয়ার্ড রুপাতলী, বরিশাল। আমি আব্দুল মান্নান এর নিজ
মালিকাধীন নগর প্লাজার কিছু স্টল ভাড়া নিয়ে একটি সানিটারী ও টাইলস এর
দোকান পরিচালনা করিয়া আসিতেছি জসিম উদ্দিন খান। গত ০১/১১/২০১৩
তারিখ এক চুক্তির মাধ্যমে মােঃ জসিম উদ্দিন খান ভাড়া নেয়। যাহার
মেয়াদ শেষ হয় ৩০/১০/২০১৭ইং তারিখ। যাহার চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার
পরে আমার ও আমার ভাড়াটিয়া মােঃ জসিম খান এর মধ্যে পুনরায় চুক্তিতে
লক্ষে ৩টি স্ট্যাম্প ক্রয় করা হয়। পরবর্তীতে ভাড়াটিয়া জসিম উদ্দিন খান
স্ট্যাম্প নিজ জিম্মায় রেখে নতুন কোন চুক্তি করতে গড়িমসি করেন এবং সময়
মত ঠিক-ঠাক ভাড়া পরিশােধ না করে একটি দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হওয়ায়
১০/০৭/২০১৭ইং তারিখ একটি সাদা কাগজে আরেকটি চুক্তি হয় যাহাতে
উভয়ের স্বাক্ষর আছে। কিন্তু এই সাদা কাগজের চুক্তি মােঃ জসিম উদ্দিন খান
না মেনে জোড় জবর দখল কয়ে ভাড়া না দিয়ে আমার স্টল গুলােতে ব্যবসা
পরিচালনা করিয়া আসিতেছে। যাহাতে করে তাহার নিকট অনেক টাকা পাওয়া
হয়। এবং পাওনা টাকা চাইতে গেলে অামাকে ০৯/০১/২০২০
তারিখ
রক্তাক্ত জখম করে এবং মোবাইল ছিনতাই করাসহ বিভিন্ন অপরাধ সংগঠিত
করে। পরবর্তী সময় আমার ছেলের কাছে টাকা চাওয়াসহ, প্রতারণা, হুমকি,
মানহানীকর গালিগালাজ শারীরিক নির্যাতন, টাকা ছিনতাই, চুরিসহ বিভিন্ন ভাবে
হুমকি দিয়ে আসিতেছে। অতপর ০৬/০১/২০২০ ইং তারিখে অত্র পত্রিকায়
আমার নামে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে যে, আমি মােঃ জসিম খানকে জামাত
ইসলামী বাংলাদেশের একটি সদস্য পদে যােগদানসহ আরাে ৫০ জন সদস্য
দেওয়ার জন্য অনুরোধ করি। মূলত অত্র সংবাদটি মিথ্যা যা আমার নামে প্রকাশ
করিয়া আমার পাওনা টাকা আত্মসাৎ করিয়া পাতাৱা মাতৃ। তাহার বক্তব্যেই
প্রকাশ পায় যে আমাদের মধ্যে দোকান ভাড়া সংক্রান্ত বিষয়ে একটি দ্বন্দ্ব চলমান
এবং বিজ্ঞ আদালতে বিভিন্ন মােকাদ্দমা চলমান রইয়াছে। বিভিন্ন ভাড়াটিয়া মাস্তান ধারা জসিম খান আমাকে ভয় দেখাই যা আমার ভাড়া দেওয়া স্টল না ছাড়িয়া
ও ভাড়া পরিশােধ না করিয়া জোর জবর দখল করিতেছে। প্রকৃতপক্ষে আমি
একজন অরাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব যাহা অর্জন স্বীকৃত। কিন্তু ইসলাম আমায় ধর্ম
বিদায় ইসলামিক নীতি অনুসরন করি। জসিম উদ্দিন খান এর সহিত আমার
দোকান ভাড়া নিয়ে দ্বন্দ্বের কারনে উক্তরুপ মিথ্যাচার করিতেছে। তাহার নিকট
হইতে আমি কখনাে কোন চুক্তির মাধ্যমে ২৯ লাখ টাকা গ্রহন করি নাই। সে অবৈধ ভাবে আমার স্টলে ব্যবসা পরিচালনা করে আসিতেছে।
দোকানে তালা বন্ধ করা ও বিদ্যুতের সংযোগ কাটার বিষয়ে মিথ্যাচার করে।
জসিম খান আমার সততার সুযােগ নিয়ে বিভিন্ন সময়ে আমার কাছ থেকে টাকা
ধার বাবদ নিয়েছে। যা এখন পর্যন্ত পরিশােধ করে নাই। তদুপরি জসিম
আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচাযরণা ও মিথ্যা অভিযােগ এনে অর্থ আত্নসাৎ ও অবৈধ
জবরদখল এর মতাে অপকর্মে লিপ্ত রয়েছে।এমত অবস্থায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে
আমার বিনীত আবেদন জসিম খানের নিকট হইতে আমার
পাওনা টাকা প্রাপ্তি সাপেক্ষে আমার স্টল বুঝিয়া পাইতে পারি তা সুব্যবস্থার মর্জি
হন।
নিবেদক
আব্দুল মান্নান
পিতা- তানজের আলী
নগর প্লাজা, রুপাতলী বরিশাল।