হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত বাউফলে জোড়া খুনের মামলার বাদি ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের

নভেম্বর ১৪ ২০২০, ১২:৫৫

Spread the love

বাউফলে যুবলীগ নেতা রুমন তালুকদার ও ইশাত তালুকদার খুনের মামলার বাদি ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বাউফল প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নিহত রুমন ও ইশাতের বড় ভাই কেশবপুর ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সালেহ উদ্দিন পিক ুউল্লেখ করেন, চলতি বছর ২ আগস্ট প্রতিপক্ষ একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন লাভলু ও তার দোষরদের হাতে তার ভাই কেশবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি রুমন তালুকদার ও চাচাতো ভাই যুবলীগ নেতা ইশাত তালুকদার খুন হন। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন লাভলু, ফারুক আহম্মেদ, রফিকুল ইসলাম, রাসেল হাওলাদার, ইব্রাহিম, নুরুল ইসলাম, আব্বাস, রাস মোহন, রিন্টু তালূকদার ও শুভসহ ৫৯ জনের বিরুদ্ধে বাউফল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলার চার নম্বর আসামী রাসেলেরর স্ত্রী গত ৮ নবেম্বর পটুয়াখালী কোটে খুনের মামলার বাদি মফিজ উদ্দিন ও তার পরিবারের পাঁচ সদস্যসহ মোট ১০ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির ও অন্যান্য অভিযোগ এনে পটুয়াখালী কোটে একটি মামলা দায়ের করেন। খুনের মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে এই মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়। এ ছাড়াও এই খুন মামলার দুই নম্বর আসামী ফারুক তালুকদারের স্ত্রী সাফিয়া বেগম খুনের মামলার বাদি ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে আরও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হবে বলে হুমকি দিয়েছেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নিহত রুমন তালুকদারের মা ফাতিমা বেগম, বড় বোন, শারমিন নাহার লাকি, জেবুন্নাহার অনি, বড় ভাই ইউপি সদস্য জিয়া উদ্দিন সুজন, কেশবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান টিটু প্রমূখ।

একই দিন অপর একটি সংবাদ সম্মেলনে জুয়েল তালুকদার নামের এক ব্যক্তি লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, কেশবপুর ইউনিয়নের জোড়া খুনের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার বাদি ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করা হয়েছে । ওই মামলায় তাকে সাত নম্বর স্বাক্ষী করা হয়েছে। অথচ তিনি এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না। জোড়া খুনের মামলাটি ভিন্ন খাদে প্রবাহিত করতে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।