ভোলার চরফ্যাশনে বিট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ

জুলাই ০৬ ২০২০, ০৬:৪৯

Spread the love

 

চরফ্যাশনে পল্লী বিদ্যুতের খাম বসানোর অজুহাতে বন বিভাগের সরকারি গাছ কাটার ঘটনায় বিট কর্মকর্তা সঙ্গে চালানো হচ্ছে ঘুষ বাণিজ্য। ৫/৬ দিন সড়কে গাছ কাটতে বিট কর্মকর্তা মাসুম মাতুব্বরকে ঘুষ দিলেই সড়কের সরকারি গাছ কাটা যায়। তবে বিট কর্মকর্তার দাবি, সরকারি গাছ কাটতে না দিলেই ঘুষের অভিযোগ তোলা হয়। শনিবার তিনি এ কথা বলেন।

কর্তৃনকারীরা বলেন, উপরের নির্দেশে আমরা গাছ কাটছি। বন বিভাগের বিট কর্মকর্তার অনুমতি আছে কিনা এমন কথায় গাছ কর্তৃনকারী সবাই চুপসে যায়। ওই এলাকার দায়িত্বরত ঘোষেরহাট বিট কর্মকর্তা মাসুম মাতুব্বর বলেন, শুক্রবার কোনো গাছ কাটা হয়নি। অথচ দেখা যায় শুক্রবারে প্রায় ১শ কেবি গাছ লুটপাট হয়েছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন বন বিভাগের অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে এই সড়কে প্রতিনিয়ত সরকারি গাছ কাটা হয়। চরতোফাজ্জল গ্রামের বাতানিয়া পোলের গোড়ার বাসিন্দা আলা আমীন বলেন, আজ ৫ দিন হয়। এই সড়কে গাছ কাটা হচ্ছে। এতে প্রায় ১ থেকে দেড়শ’ কেবি গাছ লুটপাট হয়েছে। বিট কর্মকর্তা আইওয়াস হিসেবে ৪-৫ টুকরো গাছ ২৪ জুন ভ্যানে করে অফিসে জমা দিয়েছে। মোটা গাছগুলো অদৃশ্য কারণে লুট হয়ে গেছে। বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা মাসুম মাতুব্বর বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা ভুয়া। চরফ্যাশন উপজেলা রেঞ্জ কর্মকর্তা আলাউদ্দিন বলেন, আমি বিষয়টি বিট অফিসারকে বলেছি। কোনো অনিয়ম হলে বিট অফিসারকেও ছাড় দেব না।