বরিশালে ২৪ ঘন্টায় ১২ জন করোনায় আক্রান্ত, মোট ১৩৭ জন

মে ২২ ২০২০, ১৭:১৭

Spread the love

বরিশালে আজ করোনা সনাক্ত ১২ জন এনিয়ে জেলায় করোনা পজিটিভ ১৩৭ জনের সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৪২ জন।

বরিশালে গত ২৪ ঘন্টায় আরো ১২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে এই নি‌য়ে জেলায় ক‌রোনা আক্রা‌ন্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১৩৭ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকার মুনসুর কোয়ার্টার বটতলা পুরুষ বয়স (৬৫), নগরীর সাহেবের গোরস্থান গোল্লি সদর রোড পুরুষ বয়স (৪০), অন্য একজন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নার্স বয়স (৩০), অন্য ৬ জন পুলিশ সদস্য এদের মধ্যে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ৪ জন, জেলা পুলিশের ২ জন সদস্য বাকি ৩ জন পুলিশ সদস্যদের পরিবারের সদস্য। এদের মধ্যে নারী ৩ জন তাদের বয়স (৪০, ৩৪, ৩৭), পুরুষ ৬ জন তাদের বয়স (১৭, ৩৫, ৩৯, ৪১, ৪৩, ৪৫) তাদের কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া গেছে। আজ ২২ মে শুক্রবার বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজর মাইক্রোবায়লোজি বিভাগে স্থাপিত আরটি-পিসিআর ল্যাবে বেশ কিছু নমুনা পরীক্ষা করা হলে ১২ জনের রিপোর্ট পরেজটিভ আসে। বরিশাল জেলা প্রশাসক এস, এম, অজিয়র রহমান জানান, রিপোর্ট পাওয়ার পর পরই ওই বারোজন ব্যাক্তির অবস্থান অনুযায়ী তাকে লকডাউন করা হয়েছে তাদের আশপাশের বসবাসের অবস্থান নিশ্চিত করে লকডাউন করার প্রক্রিয়া চলচ্ছে। পাশাপাশি তাদের অবস্থান এবং কোন কোন স্থানে যাতায়াত ও কাদের সংস্পর্শে ছিলেন তা চিহ্নিত করার কাজ চলছে, সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আজ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ৩৯ জন নারী এবং ৯৮ জন পুরুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে শূণ্য থেকে ২০ বছর বয়স পর্যন্ত আক্রান্ত ১২ জন, ২০ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত আক্রান্ত ১০২ জন, ৫০ থেকে তার উর্ধে ২৩ জন। বরিশাল জেলায় করোনা আক্রান্ত উপজেলা সমূহ বরিশাল মহানগরী ৯৩, সদর উপজেলা ২জন (রায়পাশা কড়াপুর এবং চরমোনাই), বাবুগঞ্জ ১২জন, মেহেন্দীগঞ্জ ৫জন, উজিরপুর ৮জন, হিজলা ৩জন, গৌরনদীতে ৩জন, বানারীপাড়া ৩জন, বাকেরগঞ্জে ৪জন, মুলাদী ২জন এবং আগৈলঝাড়া ২জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়। অদ্যাবধি এ জেলায় মোট ৪২ জন ব্যক্তি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। উল্লেখ্য আজ ২২ মে একজন আক্রান্ত তিনি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালের নার্স হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। বরিশাল সদর হাসপাতালের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট কর্মরত ০১ জনসহ করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে এ জেলায় স্বাস্থ্য বিভাগে কর্মরত ১০ জন চিকিৎসক এদের মধ্যে ৪ জন ইন্টার্ন চিকিৎসক, ৭ জন নার্স, ১ জন ব্রাদার, ১ জন পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক, ১ জন মেডিকেল টেকনোলজিস্টসহ মোট ২০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।